1. dailydeshbidesh@gmail.com : admin :
  2. deshbiseh@gmail.com : Adbul Wahid : Adbul Wahid
শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৯:৪৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
জগন্নাথপুর সরকারী বালিকা বিদ্যালয়ের পুরাতন মালামাল কম দামে গোপনে বিক্রি করায় জনতা কর্তৃক আটক।। জগনাথপুরে সাংবাদিকদের সাথে উপজেলা প্রশাসনের প্রেস ব্রিফিং জগন্নাথপুরে পেক আইডি দিয়ে সংক্রান্ত পরিবারের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপ-প্রচারে এলাকাবাসীর নিন্দা , থানায় জিডি দায়ের ।। জগন্নাথপুরের হবিবপুরে ভূমি সংক্রান্ত বিষয়কে কেন্দ্র করে গ্রামের মান ক্ষুন্ন করায় প্রতিবাদ সভা।। যুক্তরাজ্য প্রবাসী কে মোবাইল ফোনে হুমকি দিল জার্মান প্রবাসী জগন্নাথপুরে যুক্তরাজ্য প্রবাসীকে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে হয়রানি, এলাকাবাসীর নিন্দা।। জগন্নাথপুরে পুলিশের বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার- ৫ জগন্নাথপুরে মিথ্যা মামলাসহ বিভিন্নভাবে হয়রানির প্রতিবাদে গ্রামবাসীর তীব্র নিন্দার ঝড় # জগনাথপুরে মাদ্রাসার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠান সম্পন্ন

বুয়েটের আর্কিটেকচারে শিক্ষার্থী হলেন খুলনা আর্ট একাডেমির প্রাক্তন ছাত্র বিএম নাজমুচ্ছাকি ।।

  • আপডেটের সময় : শুক্রবার, ২৩ জুন, ২০২৩
  • ৪০

মোছাঃ সূজনা আক্তার,

খুলনা আর্ট একাডেমির প্রাক্তন ছাত্র বি,এম,নাজমুচ্ছাকিব ছোট বেলা থেকে ছবি এঁকে বুয়েটের আর্কিটেকচারে শিক্ষার্থী হলেন।।

খুলনা আর্ট একাডেমির
প্রাক্তন ছাত্র বি.এম.নাজমুচ্ছাকিবকে শুভেচ্ছা জানান চিত্রশিল্পী মিলন বিশ্বাস। ছাকিবের পড়াশুনার পাশাপাশি সেই ছোট বেলা- ২০০৯ সাল থেকে ড্রইং এর প্রতি ইচ্ছা ও ভালোবাসা দেখে মুগ্ধ হয়েছিলেন এবং প্রতিষ্ঠানের সবার প্রিয় ছাত্র হয়ে উঠেছিল।সে বাম হাত দিয়ে আঁকতো ,লিখতো।তার প্রতিভা ছিল অতুলনীয়।
আজ আমরা সবাই অনেক আনন্দিত তার সফলতায় ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় আমাদের সেই ছোট্ট বাবু আজ অনেক বড় হয়ে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েটে)(Architecture)এ ভর্তির সুযোগ পেয়েছে।তার পিতা এই সুখবরটি জানায়। তার এই অর্জনে খুলনা আর্ট একাডেমি অভিনন্দন জানায়। এই প্রিয় ছাত্রকে অনেক ভালোবাসতেন কোলে তুলে আদর করতেন চিত্রশিল্পী মিলন বিশ্বাস।তার মুখে এই মেধাবী ছাত্রের সম্পর্কে একটু শৈশবের ইতিহাস জানি।সে স্কুলের ছবি খুব কম আঁকতো। ওর বাবা একজন প্রফেসর মা গৃহিনী ছোট ভাই ৯ম শ্রেণিতে পড়ে।মা বাবাও ছাকিবকে তার চাহিদার প্রাধান্য দিতেন ,তাদের কাছে শুনতাম আমি ওর প্রিয় স্যার।কারন ওর মনের চাহিদা মতো ব্যতিক্রমধর্মী ছবি দিতাম। ছাকিব পড়া লেখার অবসরে ছবি এঁকেই সময় কাটাতো। বাচ্চারা যেমন খেলাধুলা করে,কার্টুন দেখে বা বেড়াতে পছন্দ করে।সেখানে ছাকিব পছন্দ করতো ছবি আকাঁ।আমি সেই সময়ই সবাইকে বলতাম,ছাকিব কোন একদিন এমন কিছু অর্জন করবে যা সবাইকে চমকে দিবে। ঠিক তাই হলো। ২০১৭ সালে জে.এস.সি(৮ম শ্রেণিতে) পরীক্ষায় যশোর বোর্ড এর আওতায় সকলকে টপকে রেখে ২য় স্থান অর্জন করেছিলো।প্রতেক স্যারদের প্রিয় কিছু ছাত্র থাকে তেমন আমার প্রিয় ছাত্রের জন্য শুভকামনা করি।আমার এমনই আশা ছিল তোমাকে নিয়ে।ছাকিব এর মা বাবাকে ধন্যবাদ জানাই তাদের সন্তানকে তার মনের চাহিদা মতো সব অধিকার দেয়ার জন্য।এখনকার সময় শুধু পড়া আর পড়া নিয়েই ব্যস্ত থাকে প্রতিটি শিশুর মা বাবা।এতে শিশুর মাঝে কোনো সৃজনশীল প্রতিভা বিকশিত হয় না।যদি ছাকিবের মা বাবার মতো শিশুর মনের চাহিদার প্রাধান্য দিতো, এমন যদি প্রতিটি মা বাবা সন্তানের চাওয়ার মূল্যায়ন করতো তবে সকল শিশুই পেতো নিজ নিজ স্বাধীনতা।তবে সে নিজেই নিজে স্বপ্ন দেখতো এমনটা চিন্তা করেনা কেহ। যে কেউ স্বাধীনতা না পেলে সে জীবনে বড় কিছু অর্জন করতে পারেনা এটা আমার বিশ্বাস।
যে শিশুর মাঝে শিল্পের ছোঁয়া বা জ্ঞান থাকে সে কখনও খারাপ কাজে লিপ্ত হয় না-এটা আমার বিশ্বাস।প্রিয় ছাত্রের এই সুখবরে প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে ২০১৭ সালে যশোর বোর্ডে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করায় ড্রইং বিভাগে ৭দিনের জন্য ভর্তি ফি ফ্রি করা হয়েছিলো। তাই আজ যে সফলতা অর্জন করেছে আমরা এবারও ৭দিনের জন্য ভর্তি ফি ফ্রি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। শুধুমাত্র আর্ট বিষয়ে প্লে থেকে অষ্টম শ্রেণী পর্যন্ত ভর্তি ফি ফ্রি করা হয়েছে।সময়সীমাঃ২২জুন বুধবার সকাল ১০টা থেকে ২৯ইশে জুন ৬টা পর্যন্ত ভর্তির কার্যক্রম চলবে। এর পর এই সুযোগ গ্রহনযোগ্য নয়। বি.এম.নাজমুচ্ছাকিব যেন এই সাফল্যের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারে এবং তার কর্মকান্ডের মাধ্যমে বাংলাদেশের জন্য সুনাম বয়ে আনতে পারে।“সবার উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ ও স্বপ্ন পূরনে সঙ্গী হয়ে থাকবে খুলনা আর্ট একাডেমি।”
বিঃদ্রঃযে সকল শিক্ষার্থী পূর্বে খুলনা আর্ট একাডেমিতে ভর্তি হয়েছিল তাদের জন্য এ সুযোগ গ্রহনযোগ্য নয়।আসন সংখ্যা সীমিত।
★শিক্ষাই হোক শিশুর পথচলার পাথেয়,সকল শিশুর মঙ্গল কামনায়।
চিত্রশিল্পী মিলন বিশ্বাস
প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক,
খুলনা আর্ট একাডেমি।

পোস্টটি আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Comments are closed.

এই ধরনের আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 দৈনিক দেশ বিদেশ
Design and developed By: Syl Service BD