1. dailydeshbidesh@gmail.com : admin :
  2. deshbiseh@gmail.com : Adbul Wahid : Adbul Wahid
শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৯:৫২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
জগন্নাথপুর সরকারী বালিকা বিদ্যালয়ের পুরাতন মালামাল কম দামে গোপনে বিক্রি করায় জনতা কর্তৃক আটক।। জগনাথপুরে সাংবাদিকদের সাথে উপজেলা প্রশাসনের প্রেস ব্রিফিং জগন্নাথপুরে পেক আইডি দিয়ে সংক্রান্ত পরিবারের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপ-প্রচারে এলাকাবাসীর নিন্দা , থানায় জিডি দায়ের ।। জগন্নাথপুরের হবিবপুরে ভূমি সংক্রান্ত বিষয়কে কেন্দ্র করে গ্রামের মান ক্ষুন্ন করায় প্রতিবাদ সভা।। যুক্তরাজ্য প্রবাসী কে মোবাইল ফোনে হুমকি দিল জার্মান প্রবাসী জগন্নাথপুরে যুক্তরাজ্য প্রবাসীকে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে হয়রানি, এলাকাবাসীর নিন্দা।। জগন্নাথপুরে পুলিশের বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার- ৫ জগন্নাথপুরে মিথ্যা মামলাসহ বিভিন্নভাবে হয়রানির প্রতিবাদে গ্রামবাসীর তীব্র নিন্দার ঝড় # জগনাথপুরে মাদ্রাসার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠান সম্পন্ন

জগন্নাথপুরে জালিয়াতির মাধ্যমে তালাক প্রাপ্তা,রওশনা সুবিচার চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা।।

  • আপডেটের সময় : শনিবার, ২২ এপ্রিল, ২০২৩
  • ২১২

মোঃ আব্দুল ওয়াহিদ, জগন্নাথপুর সুনামগঞ্জ থেকে :-

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে স্বামী কর্তৃক তালাক ও স্বামীর পরিবারের নির্যাতনে অতিষ্ঠ হয়ে সুবিচারের আশায় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করলেন নির্যাতিতা নারি রওশনা বেগম। উল্লেখ্য যে,গত ৩০/০৩/২০২৩ ইং তারিখে তিনির বড় ভাই আনোয়ার হোসেন জগন্নাথপুর পোস্ট অফিস থেকে আব্দুর রশিদের পাঠানো রেজিস্টার চিঠি পেয়ে তালাক নামার মর্ম অবগত হয়ে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে বোনের স্বামীর বাড়িতে গিয়ে আব্দুর রশিদের তালাক নামার সত্যতা জানতে চাইলে পরিবারের লোকজন, আত্মীয়-স্বজন, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গে আব্দুর রশিদের তালাকের বিষয়টি সত্যতা স্বীকার করেন এবং সবাই অবগত রয়েছেন বলে জানা যায়। উল্লেখ্য যে, ১৯/০৭/২০১১ ইং তারিখে হিজলা গ্রামের মৃত আব্দুল শহীদ এর মেয়ে রওশনা বেগম এর বিয়ে হয় একই উপজেলার মিরপুর ইউনিয়নের কঢুরকান্দি গ্রামের মৃত সৈদ উল্লার পুত্র আব্দুর রশিদ এর সাথে।

সংসার জীবনে এক সন্তানের জননী স্বামী কর্তৃক তালাক নামা পিত্রালয়ে পাঠানোর পর সংসার ত্যাগ করে পিত্রালয়ে এসে দীর্ঘ ১২ বছরের সংসার জীবনের দুঃখ কষ্টের ও নির্যাতনের অভিযোগ সাংবাদিকদের কাছে তুলে ধরেন। নির্যাতিতা ও তালাকপ্রাপ্তা রওশনা বেগম বলেন, বিয়ের পর থেকে আজ পর্যন্ত স্বামী আব্দুর রশিদ, তার বোন সাজনা বেগম,চাচাত ভাই আব্দুল কালাম, খালাতো ভাই দুলাল মিয়া, চাচাতো ভাইয়ের ছেলে হোসেন আহমদ একজোট হয়ে বিভিন্নভাবে নির্যাতনের মাধ্যমে আমার বিরুদ্ধে অবিচার করেছে। তাদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে, ছেলের ভবিষ্যতের কথা ভেবে ও নিজের শান্তির আশায় পিতার কাছ থেকে প্রায় ৮ লক্ষ টাকা এনে স্বামীকে গ্রিসে পাঠাই। রওশনা আরো বলেন, আমার স্বামী আব্দুর রশিদ দীর্ঘ প্রায় পাঁচ বছর যাবত প্রবাসে গ্রিসে অবস্থান করে কিভাবে সুনামগঞ্জ আদালতে উপস্থিত হয়ে মাননীয় নোটারী পাবলিক ও সাক্ষীদের সামনে কিভাবে নিজ নাম স্বাক্ষর করিল? এটা সাধারণ মানুষের জ্ঞান ও ধারণার বাইরে যাহা আমি বোধগম্য নয়। এজন্য আমি আদালতে আইনের শরণাপন্ন হবো । এই কুচক্রী মহল মাননীয় নোটারী পাবলিক সুনামগঞ্জে কিভাবে আব্দুর রশিদের উপস্থিতি ও স্বাক্ষর জাল করে তালাকের হলফনামা সৃজন করেছে। আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই এবং এই জ্বালিয়াতী চক্রের সদস্যদের বিরুদ্ধে আইনি মোকাবেলা সহ প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি।এ বিষয়ে জানতে অনেক চেষ্টা করেও অভিযুক্ত আব্দুর রশিদের সাথে যোগাযোগ করার সম্ভব হয়নি। তবে তার বোন সাজনা বেগম তালাকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

পোস্টটি আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Comments are closed.

এই ধরনের আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 দৈনিক দেশ বিদেশ
Design and developed By: Syl Service BD