1. dailydeshbidesh@gmail.com : admin :
  2. deshbiseh@gmail.com : Adbul Wahid : Adbul Wahid
শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৯:২৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
জগন্নাথপুর সরকারী বালিকা বিদ্যালয়ের পুরাতন মালামাল কম দামে গোপনে বিক্রি করায় জনতা কর্তৃক আটক।। জগনাথপুরে সাংবাদিকদের সাথে উপজেলা প্রশাসনের প্রেস ব্রিফিং জগন্নাথপুরে পেক আইডি দিয়ে সংক্রান্ত পরিবারের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপ-প্রচারে এলাকাবাসীর নিন্দা , থানায় জিডি দায়ের ।। জগন্নাথপুরের হবিবপুরে ভূমি সংক্রান্ত বিষয়কে কেন্দ্র করে গ্রামের মান ক্ষুন্ন করায় প্রতিবাদ সভা।। যুক্তরাজ্য প্রবাসী কে মোবাইল ফোনে হুমকি দিল জার্মান প্রবাসী জগন্নাথপুরে যুক্তরাজ্য প্রবাসীকে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে হয়রানি, এলাকাবাসীর নিন্দা।। জগন্নাথপুরে পুলিশের বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার- ৫ জগন্নাথপুরে মিথ্যা মামলাসহ বিভিন্নভাবে হয়রানির প্রতিবাদে গ্রামবাসীর তীব্র নিন্দার ঝড় # জগনাথপুরে মাদ্রাসার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠান সম্পন্ন

জগন্নাথপুরে আব্দুল খালিক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ।।

  • আপডেটের সময় : সোমবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ২৫৬

শামীম আহমদ,
সিলেট থেকে :-

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আব্দুল খালিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও প্রধান শিক্ষক এর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা ভিত্তিহীন উদ্দেশ্য প্রণোদিত মানহানি কর অভিযোগের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি রফিক আহমদ ভূঁইয়া ও প্রধান শিক্ষক সেলিম রেজা। এক বিবৃতিতে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও প্রধান শিক্ষক বলেন, বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে বাদ দেওয়া শিক্ষক শিক্ষিকা ও ম্যানেজিং কমিটি থেকে বাদ দেওয়া লোকেরা একত্রিতভাবে মিলিত হয়ে কিছু শিক্ষার্থীদের ফুঁসলিয়ে বিভিন্ন মিথ্যা অভিযোগ সৃজন করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এর ভাবমূর্তি নষ্ট করতে পায়তারা করছে এই কু-চক্রী মহল। তারা নাটক সাজিয়ে সম্পূর্ণ মিথ্যা ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত অভিযোগ সৃজন করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে দাখিল করে বর্তমানে তদন্তাধীন রয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার আগেই তারা দু একটি অনলাইন পত্রিকায় সংবাদ প্রচার ও মানববন্ধন করে। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। পাশাপাশি সুনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারী ও মিথ্যা অভিযোগ সৃজন কারীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানাচ্ছি। অভিযোগ তদন্তাদিন অবস্থায়,প্রমাণিত না হওয়ার আগেই জাতির বিবেক দু-এক জন সাংবাদিক দু-একটি অনলাইন পোর্টালে এর সংবাদ প্রচার করেছেন। যাহা সারা বিশ্বে জগন্নাথ পুরের শিক্ষক, জগনাথপুরের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করেছে। জগনাথপুরে কর্মরত ইলেকট্রনিক্স, প্রিন্ট,ও অনলাইন মিডিয়ার সকল জাতির বিবেক সাংবাদিক দের অবগতির জন্য জানাচ্ছি যে, একটি কুচক্রি মহল সুনামধন্য বিদ্যাপীঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আব্দুল খালিক উচ্চ বিদ্যালয়ের দীর্ঘদিনের মান সম্মান ক্ষুন্ন করতে উঠে পড়ে লেগেছে। এদের মধ্যে সাবেক স্কুল শিক্ষক/ শিক্ষিকা ও ম্যানেজিং কমিটি থেকে বাদ দেওয়া সদস্য রয়েছেন।
ইতিপূর্বে স্কুলের খন্ডকালীন শিক্ষক/শিক্ষিকা, আয়ার উপর বিভিন্ন অভিযোগের প্রেক্ষিতে তাদেরকে স্কুল থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। অব্যাহতি দেওয়া খন্ডকালীন শিক্ষক-শিক্ষিকা, আয়া ও ম্যানেজিং কমিটি থেকে বাদ পড়া লোকেরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে অভিযোগ সৃজন করে প্রধান শিক্ষক, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে জড়িয়ে পড়ে। ঐ সিন্ডিকেট অভিযোগ সৃজন করে স্কুলের সহজ সরল কয়েকজন কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীদের ভুল বুঝিয়ে স্বাক্ষর নেন এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে অভিযোগ দেওয়া হয়। ঐ কু-চক্রী মহলের মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রীদের উস্কানি দিয়ে মিথ্যা অভিযোগের মাধ্যমে সংবাদ প্রচার মানববন্ধ সহ বিভিন্ন মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। এমনকি মানববন্ধনে ভুল বুঝিয়ে কয়েকজন শিক্ষার্থী ব্যতীত মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বহিরাগত শিক্ষার্থী, সাবেক শিক্ষক/ শিক্ষিকা পথচারী চা-পান দোকানদারসহ বিভিন্ন শ্রেণীর ড্রাইভার ও পথচারী। গত ২৫ ডিসেম্বর রবিবার উচ্চ বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটি, শিক্ষার্থী, অভিভাবদের নিয়ে এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় অভিযোগে স্বাক্ষরকারী শিক্ষার্থীরা জানান, প্রদান শিক্ষকের যৌন হয়রানি ও কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ এর অভিযোগ অস্বীকার করেন। শিক্ষার্থীরা প্রকাশ্যে বলেন, যৌন হয়রানি কি আমরা জানিনা এবং শিক্ষকের যৌন হারানির বিরুদ্ধে আমরা অভিযোগ দেইনি, আমাদের অভিযোগ নিয়মিত ক্লাস ভালোভাবে কোচিং এর মাধ্যমে পাঠদানসহ ভালো রেজাল্ট করা চাই। অভিযোগ ও মানববন্ধনের ব্যানারের ব্যাপারে সাবেক শিক্ষক কাজী গুলজার হোসেন (সোহেল) ও আয়া মিতা রানী দাস (মিঠু) লিখেছে। শিক্ষার্থীরা এ ব্যাপারে কিছুই জানে না বলে উল্লেখ করেন। জগন্নাথপুরে কর্মরত জাতির বিবেক সংবাদ কর্মী/সাংবাদিক বৃন্দ, অভিভাবকদের অবগতির জন্য জানাচ্ছি যে, এসব বিভ্রান্তি ও গুজবে কান না দিয়ে সঠিক তথ্য উদঘাটনের মাধ্যমে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সুনাম অক্ষুন্ন রাখতে এবং দুর্নীতিমুক্ত মানসম্মত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান উপহার দিতে আমরা সকল শিক্ষার্থী, অভিভাবক, ও জগন্নাথপুরে কর্মরত সকল জাতির বিবেক সাংবাদিকদের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করছি।

পোস্টটি আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Comments are closed.

এই ধরনের আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 দৈনিক দেশ বিদেশ
Design and developed By: Syl Service BD