1. dailydeshbidesh@gmail.com : admin :
  2. deshbiseh@gmail.com : Adbul Wahid : Adbul Wahid
শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১১:২৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
জগন্নাথপুর সরকারী বালিকা বিদ্যালয়ের পুরাতন মালামাল কম দামে গোপনে বিক্রি করায় জনতা কর্তৃক আটক।। জগনাথপুরে সাংবাদিকদের সাথে উপজেলা প্রশাসনের প্রেস ব্রিফিং জগন্নাথপুরে পেক আইডি দিয়ে সংক্রান্ত পরিবারের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপ-প্রচারে এলাকাবাসীর নিন্দা , থানায় জিডি দায়ের ।। জগন্নাথপুরের হবিবপুরে ভূমি সংক্রান্ত বিষয়কে কেন্দ্র করে গ্রামের মান ক্ষুন্ন করায় প্রতিবাদ সভা।। যুক্তরাজ্য প্রবাসী কে মোবাইল ফোনে হুমকি দিল জার্মান প্রবাসী জগন্নাথপুরে যুক্তরাজ্য প্রবাসীকে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে হয়রানি, এলাকাবাসীর নিন্দা।। জগন্নাথপুরে পুলিশের বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার- ৫ জগন্নাথপুরে মিথ্যা মামলাসহ বিভিন্নভাবে হয়রানির প্রতিবাদে গ্রামবাসীর তীব্র নিন্দার ঝড় # জগনাথপুরে মাদ্রাসার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠান সম্পন্ন

সুনামগঞ্জ বড়পাড়ায় নিখোঁজ সন্তানের সন্ধান করায় বয়োবৃদ্ধ স্বামী-স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম থানায় অভিযোগ দায়ের।।

  • আপডেটের সময় : রবিবার, ৭ আগস্ট, ২০২২
  • ১২১

সুরুজ্জামান শিমুল,

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

সুনামগঞ্জ পৌর শহরের বড়পাড়া আবাসিক এলাকায় নিখোঁজ সন্তান সুরুজ মিয়ার সন্ধান করায় বায়োবৃদ্ধ বাঁক প্রতিবন্ধী স্বামী-স্ত্রীকে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করা হয়েছে। মঙ্গলবার ভোর আনুমানিক ছয়টার দিকে বড়পাড়া আবাসিক এলাকার বাঁক প্রতিবন্ধী সিদ্দিকুর রহমানের বসতবাড়িতে ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় আহতরা হলেন, মিনারা বেগম ৬০, সিদ্দিকুর রহমান ৭০। আহতদের সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় জখমী আব্দুল মতিন বাদী হয়ে সঞ্জয় আলী সহ সাত জনকে অভিযুক্ত করে সদর মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদশী সূত্রে জানা যায়, পাশের বাড়ির প্রভাবশালী সঞ্জয় মিয়া তার ছেলে রানা মিয়া, সাগর মিয়া,নয়ন মিয়া, সহধমীনি মনোয়ারা বেগম, জামাই হাবিব মিয়া গংরা মিলে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত ও গুরুতর জখম করেছে। বাঁক প্রতিবন্ধী মিনারা বেগম বলেন, গত চার জুন রাতে আমার ছেলে সুরুজ মিয়া বসতঘর থেকে বের হওয়ার পর তাকে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও পাওয়া যায়নি। পরে ছয় জুন সদর মডেল থানায় একটি নিখোঁজ জিডি এন্ট্রি করি। যার নং-৩১২ তারিখ ৬-৬-২২ ইং। তিনি বলেন,আমার ছেলে নিখোঁজ হওয়ার দুই এক দিন আগে প্রতিপক্ষ গংদের বাড়ির সীমানার একটি নারিকেল গাছ কর্তন করে। এরই জের ধরে আমার ছেলেকে গুম করা হয়েছে। ঘটনার রাতে আমি ও আমার স্বামী বসতঘরে বসে নিখোঁজ সন্তানের জন্য কান্নাকাটি করি। হঠাৎ দেখি সঞ্জয় ও তার লোকজন আমার পেছনের বেড়া এবং দরজা কুপিয়ে কেটে ঘরে প্রবেশ করে আমার স্বামী ও আমাকে কুপিয়েছে। পরে আশপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আমাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ বিষয়ে সঞ্জয় আলী বলেন, আমাদেরকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। পরে এক পর্যায়ে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। সুনামগঞ্জ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইফতেখার উদ্দীন চৌধুরী বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পোস্টটি আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Comments are closed.

এই ধরনের আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 দৈনিক দেশ বিদেশ
Design and developed By: Syl Service BD