1. dailydeshbidesh@gmail.com : admin :
  2. deshbiseh@gmail.com : Adbul Wahid : Adbul Wahid
শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১০:২৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
জগন্নাথপুর সরকারী বালিকা বিদ্যালয়ের পুরাতন মালামাল কম দামে গোপনে বিক্রি করায় জনতা কর্তৃক আটক।। জগনাথপুরে সাংবাদিকদের সাথে উপজেলা প্রশাসনের প্রেস ব্রিফিং জগন্নাথপুরে পেক আইডি দিয়ে সংক্রান্ত পরিবারের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপ-প্রচারে এলাকাবাসীর নিন্দা , থানায় জিডি দায়ের ।। জগন্নাথপুরের হবিবপুরে ভূমি সংক্রান্ত বিষয়কে কেন্দ্র করে গ্রামের মান ক্ষুন্ন করায় প্রতিবাদ সভা।। যুক্তরাজ্য প্রবাসী কে মোবাইল ফোনে হুমকি দিল জার্মান প্রবাসী জগন্নাথপুরে যুক্তরাজ্য প্রবাসীকে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে হয়রানি, এলাকাবাসীর নিন্দা।। জগন্নাথপুরে পুলিশের বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার- ৫ জগন্নাথপুরে মিথ্যা মামলাসহ বিভিন্নভাবে হয়রানির প্রতিবাদে গ্রামবাসীর তীব্র নিন্দার ঝড় # জগনাথপুরে মাদ্রাসার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠান সম্পন্ন

শান্তিগঞ্জে ‘হাতের কাম’ ঠেকাতে পাহারা।

  • আপডেটের সময় : সোমবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২১
  • ৭৩

সুরুজ্জামান শিমুল,সুনামগন্জ প্রতিনিধি

সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জের ৮ ইউনিয়নের নির্বাচন হবে উৎসবমুখর ও উত্তেজনাকর। শেষ মুহূর্তে ভোটারদের মনোযোগ কাড়ার কৌশল হিসেবে অনেক প্রার্থীই বেছে নিচ্ছেন অবৈধ পথ। রাত কিংবা দিনে, প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে বিশেষ ‘উৎকোচ’ দিয়ে ভোট সংগ্রহের চেষ্টা চলছে উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে। এই বিশেষ উৎকোচ স্থানীয়ভাবে ‘হাতের কাম’ বলেই পরিচিত। ইউনিয়নগুলোতে ‘অপেন সিক্রেট’ অবৈধ এই হাতের কাম ঠেকাতে একে অন্যের প্রতি পাহারা বসিয়েছেন প্রার্থীরা।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শান্তিগঞ্জ উপজেলার ৮ ইউনিয়নেই চেয়ারম্যান থেকে শুরু করে মেম্বার এমনকি কোনো কোনো ক্ষেত্রে সংরক্ষিত মহিলা সদস্য (মহিলা মেম্বার) পদপ্রার্থীরাও গোপনে টাকা বিলিয়ে ভোট সংগ্রহের চেষ্টা করছেন বলে গুঞ্জন রয়েছে।
উপজেলার দরগাপাশা, পূর্ব পাগলা, জয়কলস, পশ্চিম পাগলা ও পূর্ব বীরগাঁওয়ের ও পশ্চিম বীরগাঁও ইউনিয়নের একাধিক ভোটার জানিয়েছেন, দলে দলে বিভক্ত হয়ে নির্বাচনী ওয়ার্কের নামে পাড়া-মহল্লায় ঢুকে পড়েন বিভিন্ন প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকেরা। তাদেরকে পাহাড়া দিতে কিংবা হাতের কাম ঠেকাতে তৎপর থাকেন অন্য প্রার্থীর সমর্থকেরা। শুধু যে এই ৫ টি ইউনিয়নেই হচ্ছে এমন অবৈধ খেলা তা কিন্তু নয়, এমন হাতের কাম চলছে উপজেলার বাকী ইউনিয়নগুলোতেও।
পশ্চিম বীরগাঁও ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের প্রতিদ্বন্দ্বি স্বতন্ত্র প্রার্থী শফিকুল ইসলাম বুধবার রাতে থানার ওসি মুক্তাদীর আহমদের নিকট অভিযোগ করেছেন, তাকে ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডে বুধবার ঢুকতে দেওয়া হয় নি। অন্যদিকে ওই ওয়ার্ডের আরেক স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী লুৎফুর রহমান জায়গীরদার খোকন বলেছেন, শফিকুল ইসলাম’এর হাতের কাম ঠেকাতে বাঁধা দেওয়ায় তিনি এমন অভিযোগ করছেন। ওই ইউনিয়নে বৃহস্পতিবার বিকালে আইন-শৃঙ্খলা সভায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী অ্যাড. দেবাংশু শেখর দাশ ও জমিয়তে ওলামায়ে ইসলামের প্রার্থী মুফতি মফিজুর রহমান গ্রামে গ্রামে টাকা ছড়ানোর (হাতের কাম) আশঙ্কা ব্যক্ত করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা চেয়েছেন।
শান্তিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি কাজী জমিরুল ইসলাম মমতাজ বললেন, মানুষের নৈতিকতা মারাত্মক স্খলন হয়েছে। ভোট কিনতে চায়। এটা সবচেয়ে বেশি উদ্বেগের বিষয়। যাদের কোনো যোগ্যতা নেই, তারাই ভোট কিনতে চায়।
শান্তিগঞ্জ থানার ওসি মুক্তাদীর আহমদ বললেন, পশ্চিম বীরগাঁওয়ের আইন-শৃঙ্খলা সভায় কোন কোন প্রার্থী টাকা ছড়ানোর আশঙ্কা ব্যক্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা চেয়েছেন।
শান্তিগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম বলেন, এই বিষয়ে কোনো অভিযোগ আমাদের কাছে নেই। লিখিত অভিযোগ হলে আমরা তদন্ত সাপেক্ষে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেবো।
২৮ নভেম্বর জেলার শান্তিগঞ্জ ও সদর উপজেলার ১৭ ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

পোস্টটি আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Comments are closed.

এই ধরনের আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 দৈনিক দেশ বিদেশ
Design and developed By: Syl Service BD