1. dailydeshbidesh@gmail.com : admin :
  2. deshbiseh@gmail.com : Adbul Wahid : Adbul Wahid
শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১০:৩০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
জগন্নাথপুর সরকারী বালিকা বিদ্যালয়ের পুরাতন মালামাল কম দামে গোপনে বিক্রি করায় জনতা কর্তৃক আটক।। জগনাথপুরে সাংবাদিকদের সাথে উপজেলা প্রশাসনের প্রেস ব্রিফিং জগন্নাথপুরে পেক আইডি দিয়ে সংক্রান্ত পরিবারের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপ-প্রচারে এলাকাবাসীর নিন্দা , থানায় জিডি দায়ের ।। জগন্নাথপুরের হবিবপুরে ভূমি সংক্রান্ত বিষয়কে কেন্দ্র করে গ্রামের মান ক্ষুন্ন করায় প্রতিবাদ সভা।। যুক্তরাজ্য প্রবাসী কে মোবাইল ফোনে হুমকি দিল জার্মান প্রবাসী জগন্নাথপুরে যুক্তরাজ্য প্রবাসীকে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে হয়রানি, এলাকাবাসীর নিন্দা।। জগন্নাথপুরে পুলিশের বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার- ৫ জগন্নাথপুরে মিথ্যা মামলাসহ বিভিন্নভাবে হয়রানির প্রতিবাদে গ্রামবাসীর তীব্র নিন্দার ঝড় # জগনাথপুরে মাদ্রাসার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠান সম্পন্ন

পিইসি-জেএসসি আর নয়। শিশুদের ওপর পরীক্ষার চাপ কমাতে হবে

  • আপডেটের সময় : বুধবার, ৬ অক্টোবর, ২০২১
  • ৭৫

সুরুজ্জামান শিমুল,সুনামগন্জ

এখন অক্টোবর মাস। ডিসেম্বরে শিক্ষাবর্ষ শেষ। অথচ অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা এখনো জানে না চলতি বছর প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষাটি (পিইসি) হবে কি না। নীতিনির্ধারকদের এই সিদ্ধান্তহীনতায় শিক্ষার্থী ও অভিভাবকেরা মহা দুশ্চিন্তায়। করোনার কারণে চলতি বছর জেএসসি হবে না, সে কথা শিক্ষা মন্ত্রণালয় আগেই জানিয়ে দিয়েছে।
সরকার ২০২৩ সাল থেকে প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ে যে নতুন শিক্ষা কার্যক্রম চালু করতে যাচ্ছে, তাতে দশম শ্রেণির আগে কোনো পাবলিক পরীক্ষার কথা বলা হয়নি। উল্লেখ্য, ২০০৯ সাল থেকে পঞ্চম শ্রেণিতে পিইসি ও ২০১০ সালে অষ্টম শ্রেণিতে জেএসসি পরীক্ষা চালু করে সরকার। সেই থেকেই পরীক্ষা দুটি চলে আসছে শিক্ষাবিদসহ নানা মহলের বিরোধিতা ও আপত্তি সত্ত্বেও। তবে ২০২০ সালে করোনা সংক্রমণের কারণে পরীক্ষা দুটি হতে পারেনি। এতে শিক্ষার্থীদের মনে আশা জেগেছিল যে পরীক্ষার বাড়তি চাপ থেকে তারা রেহাই পাবে। কিন্তু অক্টোবরে এসেও পিইসির বিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত না আসা দুর্ভাগ্যজনক।
শিক্ষার এই গতানুগতিক ধারা থেকে বেরিয়ে আসার জন্য সরকার নতুন শিক্ষাক্রম তৈরি করেছে, যেখানে যৌক্তিকভাবেই দশম শ্রেণি বা এসএসসিতে শিক্ষার্থীদের প্রথম পাবলিক পরীক্ষা নেওয়ার কথা বলা হয়েছে। সরকার যদি নিজের ঘোষিত শিক্ষাক্রমকে অমান্য না করে, তাহলে কোনোভাবে উচিত হবে না পিইসি ও জেএসসিতে পাবলিক পরীক্ষা বহাল রাখা।
শিক্ষা নিয়ে সরকারের কথা ও কাজে মিল সামান্যই। সরকার ২০১০ সালে ঢাকঢোল পিটিয়ে যে নতুন শিক্ষানীতি ঘোষণা করেছিল, তাতে প্রাথমিক শিক্ষার স্তর নির্ধারণ করা হয়েছিল প্রথম থেকে অষ্টম শ্রেণি। ১৯৭৪ সালে প্রণীত ড. কুদরাত-এ-খুদা শিক্ষা কমিশনেও অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত প্রাথমিক শিক্ষার কথা ছিল। কিন্তু সরকারের নীতিনির্ধারকেরা সেই দুরূহ পথে না গিয়ে শিশুশিক্ষার্থীদের ওপর অন্যায়ভাবে পিইসি ও জেএসসি পরীক্ষা চাপিয়ে দিলেন।
আন্তর্জাতিক শিক্ষা দিবসে রাজধানীতে বাংলাদেশ ইউনেসকো জাতীয় কমিশন আয়োজিত ভার্চ্যুয়াল আলোচনায় শিক্ষাবিদ ও অর্থনীতিবিদ মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষা স্থায়ীভাবে বাতিল করার দাবি জানিয়েছেন। ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরিটাস অধ্যাপক মঞ্জুর আহমদও বলেছেন, প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা বাদ দেওয়ার কথা বললেও কাজ হয়নি। অন্য দিকে পিইসি পরীক্ষার বিষয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এখনো উচ্চপর্যায়ের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায়।
কেবল নতুন শিক্ষাক্রম নয়, সার্বিকভাবে শিক্ষার স্বার্থে শিশুশিক্ষার্থীদের ওপর পরীক্ষার চাপ কমানো প্রয়োজন। কেননা, এসব পরীক্ষার কারণে কোচিং-নোটবই ব্যবসার স্ফীতি ছাড়া শিক্ষার্থীদের কোনো লাভ নেই। জেএসসির মতো পিইসি পরীক্ষাও বাতিল করা হোক।

পোস্টটি আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Comments are closed.

এই ধরনের আরো সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021 দৈনিক দেশ বিদেশ
Design and developed By: Syl Service BD